পশ্চিমবঙ্গের ভয়াবহ বন্য

কিছু দিন আগে পশ্চিমবঙ্গে ভয়াবহ বন্য হয়ে গেল । যার ফলে বহু মানুষের প্রাণ ও অনেক কষ্টে তৈরী ঘর বাড়ি ,অর্থ  পশু পাখি চাষাবাদ সবই চলে গেল। বন্যা হওয়ার প্রধান দুটি কারণ ছিল। ১ ডিভিসি জল ও ২ বৃষ্টির জল । এবছর অন্যান্য বছরের তুলনায পশ্চিমবঙ্গ ও তার প্রতিবেশী অন্যান্য রাজ্যে প্রচুর বৃষ্টিপাত হয় ও যার কারনে dbc প্রচুর পরিমাণে জল ছাড়তে বাধ্য হয়  ।এই অতি মাত্রায় জল নিচু এলাকায় বা   পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জেলায়  যেমন বাঁকুড়া, বীরভূম ,কলকাতা ,পুরুলিয়া ও নানা এলাকায় বন্যার সৃষ্টি হয়। যার ফলে সাধারণ মানুষের জীবন অতিষ্ঠ হয়ে উঠে । এমন সময় আমাদের পশ্চিমবঙ্গে নানা নেতা-মন্ত্রীরা সাহায্যর হাত বাড়িয়ে দেন তারা দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া । অন্যান্য বছরের তুলনায় এবছর সুপরিকল্পিত ভাবে কাজ করায বন্যা বেশিদিন স্থায়ী হয়নি এক মাসের মধ্যে নানা জায়গায় বা তারও কম সময়ে বন্যার জল  কমতে থাকে । সরকারি সাহায্য আসার আগেই নানা বেসরকারি সংস্থা ,ক্লাব তাদের সাধ্যের মধ্যে সাহায্যের হাত  বাড়িয়ে দেন । তারা মূলত নানা শাকসবজি ,জল ও শুকনো খাবার, শিশুদের জন্য গুঁড়ো দুধ বিলিয়ে দেন জনসাধারনের মধ্যে । যদিও আমি নিজে বন্যা কবলিত এলাকার থেকে। আমাদের এখানে পশ্চিমবঙ্গের দাসপুর ২০০ টি বরবর পাম জল কমানোর জন্য বসানো হয় ।

Comments