তাপ ও তাপমাত্রা


তাপ:

তাপ একপ্রকার শক্তি যা উচ্চ তাপমাত্রার বস্তু থেকে নিম্ন তাপমাত্রার বস্তুতে তাপমাত্রার পার্থক্যজনিত কারণে বিভন্ন পদ্ধতিতে ( যেমন- পরিবহণ, পরিচলন, বিকিরণ প্রক্রিয়ায় ) গমন করে।

তাপ যেভাবে উৎপন্ন হয়:

প্রকৃতপক্ষে, তাপ পদার্থের অণুগুলোর এলোমেলো গতির ফল। পদার্থের অণুগুলো সবসময় গতিশীল অবস্থায় থাকে। কোন পদার্থের মোট তাপের পরিমাণ এর মধ্যস্থিত অণুগুলোর মোট গতিশক্তির সমাণুপাতিক। কোন বস্তুতে তাপ প্রদান করা হলে এর অণুগুলোর ছুটাছুটি বৃদ্ধি পায়, ফলে এর গতিশক্তিও বেড়ে যায়। সুতরাং তাপ পদার্থের আণবিক গতির সাথে সম্পর্কিত এক প্রকার শক্তি যা ঠাণ্ডা বা গরমের অনুভূতি জন্মায়।

তাপের একক:

আমরা জানি, তাপ এক প্রকার শক্তি সুতরাং তাপ পরিমাপের একক হবে শক্তির একক অর্থাৎ জুল ( J). এককের আন্তর্জাতিক পদ্ধতি শুরু হওয়ার পূর্বে তাপ পরিমাপের একক হিসেবে ক্যালরি (cal) সর্বাধিক প্রচালিত ছিল। উল্লেখ্য যে, 1 ক্যালরি= 4.1858 জুল।

তাপমাত্রা:

কোন বস্তুর তাপীয় অবস্থা যা নির্ধারণ করে ঐ বস্তুটি অন্য কোন বস্তুর সংস্পর্শে আসলে তাপ গ্রহণ করবে না বর্জন করবে, তাকে তার তাপমাত্রা বলে। আন্তর্জাতিক পদ্ধতিতে তাপমাত্রার একক হল ক্যালভিন(K)। ক্যালভিন এককের পূর্বে ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রার একক হিসেবে প্রচলিত ছিল।

তাপ ও তাপমাত্রার পার্থক্য:

তাপ



♦ তাপ এক প্রকার শক্তি, যা ঠাণ্ডা বা গরমের অনুভূতি জাগায়।

♦ তাপের প্রবাহ তাপের পরিমাণের ওপর নির্ভর করে না।

♦ তাপ হলো তাপমাত্রার কারণ।

♦ তাপ পরিমাপের একক জুল।

♦ দুটি বস্তুর তাপমাত্রা এক হলেও এদের তাপের পরিমাণ ভিন্ন হতে পারে।

♦ তাপ বস্তুস্থিত অণুর শক্তির সমানুপাতিক।

♦ তাপ পরিমাপক যন্ত্রের নাম ক্যালরি মিটার।

তাপমাত্রা


♦ তাপমাত্রা হচ্ছে বস্তুর তাপীয় অবস্থা, যা অন্য বস্তুর তাপীয় সংস্পর্শে নিয়ে এলে তাপ দেবে-না নেবে তা নির্ধারণ করে।

♦ তাপের প্রবাহ তাপমাত্রার ওপর নির্ভর করে।

♦ তাপমাত্রা হলো তাপের ফল।

♦ তাপমাত্রা পরিমাপের একক কেলভিন।

♦ দুটি বস্তুর তাপের পরিমাণ এক হলেও এদের তাপমাত্রা ভিন্ন হতে পারে।

♦ তাপমাত্রা বস্তুস্থিত গড় শক্তির সমানুপাতিক।

♦ তাপমাত্রা পরিমাপক যন্ত্রের নাম থার্মোমিটার।

Comments